No immediate plan to resume suburban train services: Eastern Railway GM | Kolkata News


KOLKATA: There are no plans to resume suburban train services in the near future, said Eastern Railway (ER) general manager Suneet Sharma in Kolkata on Wednesday. He was addressing a press conference on the freight performance of ER during the pandemic and remedial measures taken.
The state government is in favour of the resumption of suburban railway services. Recently, the state home secretary, Alapan Bandyopadhyay, had written a letter to the chairman of the railway board, requesting for the resumption of train services in compliance with Covid-19 social distancing norms. Sharma said: “There are issues. Our suburban stations don’t have the facilities for crowd control. We will see how the Metro Railway’s plan works out. We will also discuss the matter with the state government. However, we do not have any plan to launch suburban services at the moment,” he said.
He made it very clear that suburban train services won’t be available in Kolkata in the near future. “We will speak to the state government but there are issues that will be difficult to work out, at least in the suburban stations,” he added.



Source link

KMC co-morbidity survey in south Kolkata | Kolkata News


KOLKATA: The civic body on Wednesday conducted a co-morbidity survey in large areas of Tollygunge, New Alipore and Kalighat, which includes one of the biggest slums in the city. The survey, which the KMC health department took up in coordination with the state health department, will take stock of co-morbidity factors prevailing among city’s population, especially in Covid-19-sensitive areas.
SSKM hepatology head Abhijit Chowdhury, also a public health activist, on Wednesday visited some areas under KMC’s Borough X, which housed slums, for quality check of the Covid co-morbidity survey. While the survey is an initiative of KMC and the state health department, Covid Care Network (CCN) is providing technical and logistic support.
“The survey will help at least in three ways. One, triaging for care. By identifying people with co-morbidity, they can be made aware of their vulnerability to Covid. They can be taught early signs of turbulence so that there is no delay in seeking medical help,” said Chowdhury. “Second, people with co-morbid conditions can be given telemedicine, counselling facilities. And third, we will have a data to take priority call when a vaccine is available.”
The survey will be done in phases. “In the first, workers will select areas to collect data on types of co-morbidities.. The survey will last for two weeks,” the official said.



Source link

BSF rescues Bangladeshi woman in West Bengal | Kolkata News


KOLKATA: A 25-year old Bangladeshi woman has been rescued by Border Security Force (BSF) near the Indo-Bangladesh border in West Bengal, a statement issued by the paramilitary force said.
A civic police volunteer who was allegedly facilitating the woman’s return to Bangladesh was apprehended by the border guards.
While carrying out routine checks on Wednesday, troops of BSF’s South Bengal Frontier, posted at Hakimpur border outpost in North 24 Parganas district, spotted a woman suspiciously moving towards Bangladesh.
The woman, identified as Aina Bibi – a resident of Khulna district of the neighbouring country – was apprehended by BSF when she could not produce any valid travel document, the statement said.
During interrogation, the woman revealed that she had come to India by illegally crossing the international boundary two months ago.
After reaching India, the woman went to Barasat in North 24 Parganas district searching for work but when she did not get any job opportunity due to the lockdown, she decided to return home.
While trying to go back to Bangladesh on Tuesday, she was intercepted by a civic police volunteer near Swarupnagar in the same district.
The civic police volunteer took her to Swarupnagar police station and allegedly demanded Rs 50,000 from the woman for sending her back to Bangladesh by crossing the international boundary illegally.
When the woman told him that she had no money to pay, she was asked by him to call her family members and ask them to transfer the money into his bank account. She refused the offer and said she had Rs 5,000 in her wallet.
The person took away the money and kept her in a house for the night. The next day, she was handed over to another man for enabling her to reach Bangladesh, the statement said.
The man directed her to go towards the checkpost and left the spot. Subsequently, the woman was intercepted by BSF personnel at Hakimpur checkpost.
After coming to know that the person was a civic police volunteer with Swarupnagar police station, he was apprehended by the border guards and the woman was handed over to the police station.



Source link

স্যার আইপ্যাক থেকে বলছি, TMC নেতাদের ফোন করে তথ্য সাবাড় করল আইটি সেল!


কমলিকা সেনগুপ্ত

‘হ্যালো, স্যর আইপ্যাক (IPAC) থেকে বলছি, মানে প্রশান্ত কিশোরের টিম। আপনার সঙ্গে কিছু কথা ছিল।’

গত সপ্তাহে এমন কয়েকটি ফোনই গিয়েছে তৃণমূল নেতাদের কাছে। স্বাভাবিকভাবেই ফোনের ওপ্রান্তে থাকা ব্যক্তিকে তথ্য দিয়ে সাহায্য করেছেন। আর করবেন না-ই বা কেন! মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) ভোটকৌশলী বলে কথা। পরে খোঁজখবর নিয়ে তৃণমূল নেতৃত্ব জানতে পারেন, ওই কলগুলি প্রশান্ত কিশোরের (Prashant Kishor) দলের কারও কাছ থেকে আসেনি। অভিযোগ, এ নাকি প্রতিপক্ষের আইটি সেলের কারসাজি।                          

লোকসভা ভোটে তৃণমূলের আসন কমার পর রণকৌশলী প্রশান্ত কিশোরের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধে তৃণমূল। ইতিমধ্যেই প্রশান্তের মস্তিষ্কপ্রসূত ‘দিদিকে বলো’,’বাংলার গর্ব মমতা’র মতো কর্মসূচির সূচনা হয়েছে রাজ্যে। সিপিএম নেতৃত্ব অভিযোগ করেছে, তাদের নেতাদের দলে টানতে ফোন করেছে আইপ্যাক। এবার প্রশান্তের ওই সংস্থার নাম করে গত সপ্তাহে একাধিক ফোন উত্তর ২৪ পরগনার তৃণমূল নেতানেত্রীদের কাছে গিয়েছে বলে তৃণমূল সূত্রে খবর। ফোনে আইপ্যাকের নাম করে তৃণমূলের সংগঠন সংক্রান্ত নানা তথ্য চাওয়া হয়। প্রশান্ত কিশোরের সংস্থাকে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করেন তৃণমূল নেতারা। পরে তাঁরা খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন, গোটাটাই ভোঁ ভাঁ। প্রশান্ত কিশোরের সংস্থা কোনও ফোনই করেনি।

তাহলে আইপ্যাকের নাম ভাড়িয়ে কারা ফোন করল? খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের মুঠোফোনও ভেসে উঠেছিল ওই নম্বরটি। তাঁর অভিযোগ, টিম পিকে-র নামে বিজেপির আইটি সেল তথ্য হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছে। 

এমন ‘ষড়যন্ত্র’-র অভিযোগ আসার পর নড়চড়ে বসেছে তৃণমূল শিবির। একুশের যুদ্ধে প্রতিপক্ষ যে শাসক দলের কৌশল জানতে চাইবে, তাতে বিস্ময়ের কিছু নেই। এমতাবস্থায় দলের নেতানেত্রীদের সতর্ক করেছে তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্ব। সমস্ত নেতাদের ফোনে গিয়েছে বার্তা। তাতে রয়েছে প্রশান্ত কিশোরের সংস্থার লোকেদের নামধাম। এর সঙ্গে স্পষ্ট নির্দেশ, এই নম্বরগুলির বাইরে কাউকে তথ্য দেওয়া চলবে না। তৃণমূলের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে বিজেপি। তাদের দাবি, খেয়েদেয়ে কাজ নেই, তৃণমূল নেতাদের ফোন করে তথ্য জোগাড় করতে হবে! মানুষই ওদের সঙ্গে নেই।                                  

এককালে রাজনীতির মানে ছিল, পোস্টার ছাপা, দেওয়াল লিখন, বাড়ি বাড়ি প্রচার। ফোর জি যুগে আমূল বদলে গিয়েছে ভোটের রণনীতি। ‘কর্পোরেট কালচার’-এর ছোঁয়ায় ভোট আর শুধু মাঠে-ঘাটের লড়াইয়ে আটকে নেই। গোটা ঘটনাক্রম আরও একবার সেদিকেই ইঙ্গিত করল।

আরও পড়ুন- CPM-র কী আছে? মতাদর্শ, ভাঙাতে এসে দেবেশ দাসের কাছে শুনল PK-র লোক        





Source link

Kolkata: Three hospitals penalized for Covid treatment lapse | Kolkata News


KOLKATA: The West Bengal Clinical Establishment Regulatory Commission has asked three hospitals to pay compensation to the family of a deceased Covid patient — two of them for refusing to admit the patient and the third one for not providing ICU treatment even though he was admitted in the ICU. The 78-year-old Rishra resident had died in a fourth hospital.
Alok Nath Banerjee, a COPD patient with other co-morbid condition, was brought to Fortis Hospital on July 3 with Covid symptoms. After stabilising the patient, doctors at the hospital said the patient needed ICU care and regretted that no ICU bed was vacant.

According to the complaint lodged by Enakshi Mukherjee, the deceased’s daughter, they got in touch with All Asia Medical Institute (AAMI) in Gariahat. She claimed that the hospital offered an ICU bed but refused admission on arrival. The patient was then taken to Fleming Nursing Home, where the patient allegedly was not given ICU care. Within two-three hours, the family shifted him to an Ekbalpore nursing home, where he died four days later.
“The commission has directed Fortis to pay Rs 1 lakh and AAMI and Fleming to pay Rs 50,000 each to the family. If the patient’s family does not accept the amount, the commission will give it to the CM’s Covid Relief Fund,” said Justice Ashim Kumar Banerjee.
According to a statement issued by Arafat Faisal, head (medical service) of Fortis Hospital. Anandapur, the patient was stabilised in the emergency unit and the hospital even arranged for an ambulance when the family said they had found a bed in another hospital. “While we respect the judgment, we want to state that we have no control over availability of bed in other hospitals,” said Faisal.
“We have no record of such patient being asked to bring to our hospital or being refused admission. We are waiting for a copy of the judgment after which we would appeal to the commission for a review,” said AAMI director Harshvardhan Agarwal.
Calls to Fleming Nursing Home went unanswered.
In other judgment, the commission has asked Medica Superspecialty Hospital to refund Rs 40,000 to the family of a patient whose bill amounted to Rs 1.8 lakh for three-day admission. The hospital said it would carry out the commission’s directives. The commission has also intervened in a case of a 52-year-old patient from Diamond Harbour who was admitted at Medica for 77 days. The hospital had to discharge the patient with Rs 19 lakh dues. The patient’s family has complained to the commission that the hospital was threatening them, a claim denied by the hospital.



Source link

Covid-19: Odisha government issues guidelines ahead of festive season | Bhubaneswar News


BHUBANESWAR: Ahead of the festive season, the state government on Thursday issued common guidelines for the entire Odisha for observance of festivals like Durga Puja, Kali Puja and Laxmi Puja, during the September-November period. The pujas will be celebrated only for observance of rituals sans public participation.
The guidelines are issued based on an order of the Orissa high court that on August 31 approved to conduct Durga Puja in Cuttack city by adhering to Covid-19 guidelines, said official sources. The HC order came while hearing a PIL filed by the Balubazar puja committee in Cuttack.
While Durga puja is very popular across the state especially in twin cities of Cuttack and Bhubaneswar, Laxmi puja is celebrated with pomp and gaiety in Dhenkanal. Similarly, Kali puja is very famous in towns like Bhadrak and Jajpur.
“All types of pujas shall be conducted in indoor-like condition only for observance of rituals without public participation, pomp and grandeur. Pandals shall be covered on three sides. The fourth side shall also be covered in a way not to allow any public view of the idols. There shall be no darshan by public and devotees,” said the guidelines issued by chief secretary Asit Tripathy.
While district magistrates are authorized to issue necessary permission for conducting pujas in pandals, in the twin cities of Cuttack and Bhubaneswar, the Commissionerate of Police will issue permission.
The state government said the height of idols of various goddesses will be less than four feet while use of public address system at the puja pandals has also been restricted. Also, there will be no musical or entertainment programmes during the pujas.
Only seven persons including the organizers, priests and support staffs are allowed to remain present in the pandals at one time. The guidelines also said the persons present at the puja pandals will follow all Covid protocols of social distancing, mask use, personal hygiene and sanitation issued by central, state government and local administration.
The state government, through the guidelines, has also made it clear that there will be no immersion procession while the idols will be immersed in artificial ponds to be created by the local administration.
The district collectors, municipal commissioners and Police Commissionerate have been asked to strictly enforce the guidelines.
“Any person violating these measures will be liable to be proceeded against in accordance with the provisions of the Disaster Management Act, 2005 and the Epidemic Diseases Act, 1897 and Covid regulations,” said Tripathy in the order.
As preparations for Durga Puja starts well in advance in the twin cities of Bhubaneswar and Cuttack, the Commissionerate Police has already held meetings with various puja committees in both the cities for low key celebrations. It had already restricted activities like visit of public to mandaps, door-to-door collection of donations and immersion and Ravan Podi.



Source link

দক্ষিণ এশিয়ায় ভারতের শক্তি বাড়াল রাফাল: বায়ুসেনার প্রাক্তন প্রধান অরূপ রাহার


নিজস্ব প্রতিবেদন: টিভিতে তখন চলছে লাইভ, রাফালকে দেওয়া হচ্ছে ‘ওয়াটার স্যালুট’। আর পাঁচটা ভারতীয়র মতো সেই দৃশ্য দেখে অভিভূত বায়ুসেনার প্রাক্তন প্রধান অরূপ রাহা। মনে মনেই অভিবাদন জানালেন বায়ুসেনার নতুন ৫ সদস্যকে। Zee ২৪ ঘণ্টা ডিজিটালের প্রতিনিধিকে অরূপবাবু বলেন, ”যুদ্ধে রাফালের জুড়ি নেই, বিশেষ করে দক্ষিণ এশিয়ায় ভারতের শক্তি অনেকটা বাড়িয়ে দেবে রাফাল।”         

২৯ জুলাই ভারতের মাটি স্পর্শ করেছিল ৫টি ফরাসী যুদ্ধবিমান রাফাল। বৃহস্পতিবার ওই যুদ্ধবিমানগুলি অম্বালা বিমানঘাঁটিতে আনুষ্ঠানিকভাবে অন্তর্ভূক্ত হল ভারতীয় বায়ুসেনায়। রাফাল আসায় কতটা এগিয়ে গেল ভারত? অরূপ রাহার কথায়,”প্রতিবেশীদের চেয়ে ভারতের সামরিকশক্তি বাড়াতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেবে রাফাল। বিশেষ করে দক্ষিণ এশিয়ায় ভারতের শক্তি অনেকটা বেড়ে গেল।”

লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় ভারত-চিন সংঘাতের পরিস্থিতিতে আরও রাফালের দরকার বলে অভিমত বায়ুসেনার প্রাক্তন প্রধানের। বলেন,”লেহ-লাদাখের যা অবস্থা তাতে রাফালের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। তবে আরও বেশি সংখ্যায় রাফাল থাকলে ভালো হত।” বলে রাখি, মোট ৩৬টি রাফাল যুদ্ধবিমান ধাপে ধাপে অন্তর্ভূক্ত হবে ভারতীয় সেনাবাহিনীতে।নভেম্বরেই দ্বিতীয় দফায় আসবে আরও ৫টি রাফাল। 

এদিন অম্বালায় বায়ুসেনা ঘাঁটিতে রাফালের অন্তর্ভূক্তিকরণ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন  প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং, ফ্রান্সের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ফ্লোরেন্স পারলে, চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াত, ভারতীয় বায়ুসেনার প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল আরকেএস ভদৌরিয়া ও রাফালের নির্মাণকারী সংস্থা দাসোঁ অ্যাভিয়েশনের প্রতিনিধিরা। ফরাসি প্রতিরক্ষামন্ত্রী ফ্লোরেন্স পারলের কথায়, ভারত-ফ্রান্স প্রতিরক্ষাক্ষেত্রে নয়া অধ্যায় লিখতে চলেছে। সেনার দৃষ্টিভঙ্গিতে দেখতে বিশ্বের অন্যতম সেরা শক্তি হতে চলেছে ভারত। আর কৌশলগত দিক থেকে এই অঞ্চলে শক্তিশালী হয়ে উঠবে।       

 

আরও পড়ুন- নেহরু থেকে মোদী- গোড়াতেই গলদ! কাশ্মীরের বদলা তিব্বতে নিলে জব্দ হত চিন

 





Source link

সাতজনের বেশি প্যান্ডেলে ঢুকতে পারবেন না! দুর্গাপুজোর গাইডলাইন পড়শি রাজ্যে


নিজস্ব প্রতিবেদন- মানসিকভাবে আমরা সবাই প্রস্তুত। আমরা সবাই বুঝতেই পারছি যে এবারের দুর্গাপুজো অন্যবারের মতো হবে না। এবার ততটা জাঁকজমকপূর্ণ হবে না উত্সবের মরশুম। তার উপর মানতে হবে একাধিক সরকারি নির্দেশ। অন্যবারের মতো এবার হয়তো লাইন দিয়ে প্রতিমা দর্শন সম্ভব হবে না। কারণ তাতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা যাবে না। করোনার জন্য আর্থ-সামাজিক কাঠামো এমনিতেই নতুন করে তৈরি হচ্ছে। করোনার জন্য আজ বহু মানুষ বিপদে। অন্য বছর এই সময় নামজাদা পুজো কমিটিগুলির ব্যস্ততার শেষ থাকে না। পুজোর আর মাস দেড়েক বাকি। সামনের সপ্তাহে মহালয়া। তবে এবারের পরিস্থিতি আগের মতো নয়। বহু বড় পুজো কমিটি জানিয়ে দিয়েছে, তারা এবার অন্যবারের মতো আড়ম্বরে পুজো করবে না। 

আরও পড়ুন-  দেশে প্রথম চাষীদের জন্য অ্যাপ আনল সরকার! মাছ চাষীদেরও সুখবর দিলেন প্রধানমন্ত্রী

এরই মধ্যে ওড়িশা সরকার দুর্গা পুজোর গাইডলাইন প্রকাশ করেছে। সেখানে জনসাধারণের জন্য একগুচ্ছে নির্দেশিকা দেওয়া হয়েছে। করোনা পরিস্থিতিতে এবার ওড়িশায় দুর্গা পুজো আয়োজনে দর্শক ও পুজো কমিটিগুলিকে একগুচ্ছ নিয়ম মানতে হবে। দেখে নিন ওড়িশা সরকারের দুর্গা পুজো গাইডলাইন-

১. সাত জনের বেশি প্যান্ডেলে প্রবেশ করতে পারবেন না।

২. এই বছর ভাসানে কোনও জাঁকজমকপূর্ণ আয়োজন করা যাবে ন। প্রতিমা নিরঞ্জন হবে একেবারে সাদামাটা।

৩. প্রতিমা নিরঞ্জনের সময় মাইক ব্যবহার করা চলবে না।

৪. চার ফিটের বেশি উঁচু প্রতিমা প্যান্ডেলে রাখা যাবে না।

৫. কোভিড প্রোটোকল মানতে হবে দর্শকদের। মাস্ক পরতে হবে। স্যানিটইজার ব্যবহার করতে হবে। সমাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।

৬. জেলাশাসকদের থেকে পুজো কমিটিগুলিকে অনুমতি নিতে হবে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ পুজো আয়োজনের সব দিক খতিয়ে দেখবে।

৭. এবার পুজো উপলক্ষে কোনও জলসার আয়োজন করা যাবে না। কোনও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও হবে না।

৮. পুজোর সময় মণ্ডপে বেশি ভিড় করা চলবে না। 

এই সমস্ত নিয়ম না মানলে রাজ্য সরকার সংশ্লিষ্ট কমিটি ও ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেবে। বৃহস্পতিবারই ওড়িশায় ৩৯৯১ জন নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। ওড়িশায় এখন মোট আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় এক লাখ ৪০ হাজার। মারা গিয়েছেন ৫৯১ জন। ২২.৭৩ লাখ মানুষের টেস্ট হয়েছে ইতিমধ্যে। 





Source link

শেষ সুযোগ! মোরেটরিয়াম মামলায় চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে কেন্দ্রকে ২ সপ্তাহ সময় দিল সুপ্রিম কোর্ট | Last Chance To Decide On Loan Moratorium Plan: Supreme Court To Centre


নিজস্ব প্রতিবেদন: এই শেষ সুযোগ। দু’সপ্তাহের মধ্য়ে সময় নিয়ে চূড়ান্ত ফয়সলা জানান। কেন্দ্র এবং রিজার্ভ ব্য়াঙ্ককে ঋণের কিস্তি স্থগিত মামলায় এমনই নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। এ দিন বিচারপতি অশোক ভূষণ, বিচারপতি আর সুভাষ রেড্ডি, বিচারপতি এমআর শাহ ভিডিয়ো কনফারেন্স শুনানিতে এ কথা জানান।

করোনা পরিস্থিতিতে লকডাউন শুরু হওয়ার পর থেকে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক ঋণগ্রহীতাদের সুরাহা দিতে ঋণের কিস্তি ৩ মাসের জন্য স্থগিতের নির্দেশ দেয়। পরে আরও ৩ মাস মেয়াদ বাড়ানো হয়। অর্থাত্ মোট ৬ মাসের মেয়াদ শেষ হয় গত ৩১ অগস্ট। ওই মেয়াদের মধ্যে কিস্তির সুদ এবং মোট ছয় মাসের সুদের উপর সুদ গুনতে হচ্ছে ঋণগ্রহীতাদের। বাড়তি সুদ গোনা নিয়ে অসন্তোষ তৈরি হয় ঋণগ্রহীতাদের মধ্যে। এ দিন ২৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ঋণ রিপেমেন্ট মোরেটরিয়ামের মেয়াদ বাড়াল সুপ্রিম কোর্ট।

লকডাউনে কিস্তি স্থগিত করে আমজনতাকে যে সুবিধা দিতে চেয়েছিল সরকার, উল্টে আরও ঋণের বোঝা চাপল বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছেন বিরোধীরাও। তাঁদের অভিযোগ, বাড়তি সুদ চাপিয়ে আসলে বাঙ্কগুলিকে ফায়দা করার চেষ্টায় কেন্দ্র। এ নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে একাধিক মামলা হয়। কয়েকটি জনস্বার্থ মামলাও রয়েছে।

উল্লেখ্য, গত শুনানিতে বিচারপতি ভূষণের নেতৃত্বাধীন ৩ সদস্যের বেঞ্চ জানিয়েছিল, যাঁরা সুদ-সহ কিস্তি মেটাতে পারছেন না, তাঁদের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ যে না করা হয়। ‘ব্যাড লোন’ চিহ্নিত করে অনুত্পাদক সম্পদে পরিণত না করা হয়। তবে, এ দিন কেন্দ্র এবং রিজার্ভ ব্যাঙ্ককে সুপ্রিম কোর্ট স্পষ্ট জানিয়ে দেয়, কীভাবে ঋণগ্রহীতাদের সুরাহা দেওয়া যায়, তার একটা বিকল্প পথ পরিকল্পনা করুন। দু’সপ্তাহের মধ্যেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা বলে সুপ্রিম কোর্ট।

আরও পড়ুন- আনন্দপুরকাণ্ডের ধোঁয়াশা কাটাতে তত্পর পুলিস, জেরায় মুখোমুখি নির্যাতিতা-অভিষেক

তবে, রিজার্ভ ব্যাঙ্কের তরফে সুপ্রিম কোর্টকে জানানো হয়, এই নিয়ম চালুর সময় বলা হয়েছিল ঋণের কিস্তির সুদ এবং সুদের উপর সুদ নেওয়া হবে স্থগিত থাকার সময়ে। এই সুদ মুকুব করলে ব্যাঙ্কগুলির উপর ভীষণ চাপ তৈরি হবে। ব্যাঙ্কিং ব্যবস্থা ভেঙে পড়ার আশঙ্কাও করেন রিজার্ভ ব্যাঙ্কের তরফে আইনজীবী। কেন্দ্রের তরফে বলা হয়, ব্যাঙ্ক এবং উচ্চ পদস্থ আধিকারিকদের সঙ্গে আলোচনা চলছে। কয়েক দফা ইতিমধ্যে আলোচনা হয়েছে। যত দ্রুত সম্ভব বিকল্প পথ বেরিয়ে আসবে বলে আশা করা যাচ্ছে। 





Source link

দল যেভাবে চাইবে সেভাবেই কাজ করব, BJP-র রাজ্য কমিটিতে ঠাঁই পেয়ে খুশি বৈশাখী



মঙ্গলবার বিজেপির রাজ্য কমিটির তালিকায় নাম ছিল শোভন চট্টোপাধ্যায়ের। কিন্তু সেই তালিকায় ঠাঁই হয়নি বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়।



Source link